শপথ নিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন

প্রকাশিত: ১:৫২ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২১, ২০২১ 55 views
শেয়ার করুন

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে হিসেবে শপথ নিয়েছেন জো বাইডেন। এর আগে সেখানে উপস্থিত নবনির্বাচিত ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসও শপথ গ্রহণ করেন। প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনকে পবিত্র বাইবেলে হাত রেখে শপথ পাঠ করান।- খবর সিএনএন-এর

বাইডেনের জন্য মার্কিন রাজনীতির চূড়ায় পৌঁছানোর এই পথ মোটেও সহজ ছিল না। তিনবারের চেষ্টায় এই সাফল্য ধরা দিয়েছে তার হাতে। ১৯৮৭ এবং ২০০৮ সালে প্রেসিডেন্ট হওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বাইডেন। দু’বারই ব্যর্থ হন। কিন্তু ২০২০ সালে আর নিরাশা নয়, ধরা দিয়েছে বহুল প্রত্যাশিত সেই সফলতা। বিপুল ভোটে জিতে ট্রাম্পের হাত থেকে কেড়ে নিয়েছেন হোয়াইট হাউসের নিয়ন্ত্রণ।

এর আগে নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিতে অভিষেক অনুষ্ঠানস্থলে এসে উপস্থিত হয়েছেন জো বাইডেন ও তার স্ত্রী জিল বাইডেন। সেখানে আগে থেকে উপস্থিত থাকা কমলা হ্যারিস ও তাঁর বর ডাও এমহফকে সঙ্গে নিয়ে তারা ক্যাপিটল ভবনের সিঁড়ি দিয়ে ওপরে ওঠেন। এ সময় তাঁদের স্বাগত জানান মার্কিন আইনপ্রণেতারা। ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে অভিষেক মঞ্চে নিরাপত্তা প্রহরা দিয়ে নিয়ে আসবেন গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিল হামলার সময় দাঙ্গাবাজদের হাত থেকে সিনেটকে রক্ষা করা ক্যাপিটল পুলিশ কর্মকর্তারা।

অভিষেক অনুষ্ঠানস্থলে আগেই এসে উপস্থিত হন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন এবং সাবেক ফার্স্ট লেডি, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও ২০১৬ সালের ডেমোক্রেটিক দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন। এর কিছুক্ষণ পর সেখানে উপস্থিত হন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ ও সাবেক ফার্স্ট লেডি লরা বুশ এবং সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা। জীবিত ও সবচেয়ে বয়স্ক সাবেক প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার তেমন আশা নেই। আর বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আগেই হোয়াইট হাউস ছেড়ে গেছেন। অনুষ্ঠানস্থলে আগেই উপস্থিত হন সুপ্রিম কোর্টের বিচারকেরা। বিচারপতি সোনিয়া সটোমেয়র শপথ পাঠ করান ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে।

হোয়াইট হাউসে যখন জো বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে, তখন শেষবারের মতো এয়ারফোর্স ওয়ানে চড়ে ফ্লোরিডায় পৌঁছান বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার আগে অ্যান্ড্রুজ সামরিক ঘাঁটিতে তাঁকে সংক্ষিপ্ত পরিসরে বিদায় জানানো হয়। সেখানে তিনি ও ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।

এদিকে শপথ অনুষ্ঠানের ঠিক আগে আগে স্ত্রী ও পরবর্তী ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেনের উদ্দেশে একটি টুইট করেন জো বাইডেন। সেখানে তিনি লেখেন, ‘জিলি, আমি তোমাকে ভালোবাসি। সামনের পথচলায় তোমাকে পাশে পাওয়ায় আমি ভীষণ কৃতজ্ঞ।’ টুইটের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে তাঁদের ক্যাপিটল হিলে প্রবেশ মুহূর্তের একটি ভিডিও, যেখানে তাঁরা হাত ধরে আছে।

ভাবি ও সাবেক প্রেসিডেন্টরা অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হওয়ার আগেই সেখানে এসে উপস্থিত হন বিদায়ী ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা মিচ ম্যাককোনেল। এ ছাড়া অন্য সিনেটররা সেখানে উপস্থিত হন। তাঁদের উপস্থিতি ঘোষণার পরপরই তাঁরা কোভিড সতর্কতা হিসেবে দূরে-দূরে সজ্জিত আসনগুলোতে বসেন।

সাধারণত অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রচুর লোকসমাগম হয়। ক্যাপিটল হিলের ওয়েস্ট ফ্রন্টে বহু মানুষ নিবন্ধন করে বা আমন্ত্রিত হয়ে যোগ দেন। কিন্তু এবারের চিত্র ভিন্ন। এবার সাধারণের জন্য কোনো আমন্ত্রণপত্র ছিল না। ছিল না নিবন্ধন করে এতে যোগ দেওয়ার কোনো সুযোগ। এই শূন্যতা ঢাকতে ওয়েস্ট ফ্রন্টে বসানো হয়েছে হাজারো মার্কিন পতাকা। বাইরে ভিড় করে থাকা মানুষেরাও এবার থাকছেন না। তবে হোয়াইট হাউসে আসার পথে বাইডেনকে দুয়ো জানাতে রাস্তার দু পাশে ট্রাম্প সমর্থকেরা ঠিকই ছিলেন।